India Post Office Service at home

India Post Office – আর চিন্তা নেই। আপনার পার্সেল নিতে এবার পোস্ট অফিস পৌঁছবে আপনার দরজায়।

আমাদের দেশ ভারতবর্ষ এখন ডিজিটাল হওয়ার দিকে বেশ কয়েকটা ধাপ অগ্রসর হয়েছে (India Post Office)। আর কিছু দিনের মধ্যেই 5জি পরিষেবা হয়তো চালু হয়ে যাবে। আর এই দ্রুতগতির ইন্টারনেটের যুগে email, WhatsApp এর সৌজন্যে চিঠি লেখার পাঠ চুকে গিয়েছে অনেক আগেই।

সেই পুরোনো দিনের ডাক মারফত হাতে লেখা চিঠি পাঠানোর রেওয়াজ স্মার্টফোন-পরবর্তী যুগে জায়গা নিয়েছে ইতিহাসের পাতায়। এখন কয়েক হাজার কিলোমিটার দূরের মানুষও প্রযুক্তির আশীর্বাদে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই যোগাযোগ করতে পারে অন্য দেশের মানুষের সাথে।

এই উন্নত প্রযুক্তির সৌজন্যে এক ধাক্কায় জমি হারানো প্রায় দেড় শতাব্দী প্রাচীন ডাক বিভাগ গত কয়েক বছর ধরেই আঁকড়ে ধরতে চাইছিল পার্সেল পরিষেবাকে (India Post Office Doorstep Service).

সেখানেও তাকে বেসরকারি কুরিয়র সংস্থার সঙ্গে রীতিমতো পাল্লা দিতে বেগ পেতে হচ্ছে। তাই পরিষেবা আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে প্রেরকের দরজা থেকে পার্সেল (India Post Office) তুলে নিয়ে পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু করে দিলো ডাক বিভাগ। উত্তর কলকাতায় বড়বাজারে ওই পরিষেবা শুরু করে বেশ সাফল্য পেয়ে সম্প্রতি বিধাননগর ও নিউ টাউনে তারই সূচনা হল।

দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা প্রিয়জনকে উপহার ছাড়াও নানা রকম জরুরি জিনিসের পার্সেল পাঠাতে অনেকে ডাকঘরে আসেন।
এ ছাড়াও পোশাক, ঘর সাজানোর উপকরণ, শুকনো খাবার, হস্ত শিল্প সামগ্রী ইত্যাদির পার্সেল অনলাইনে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দিতে বেসরকারি ক্যুরিয়ার কোম্পানি ও ই-কমার্স পরিষেবার সাহায্য নেন বিক্রেতারা।

পার্সেল পাঠাতে এমন গ্রাহকদের যাতে ডাকঘরে আসতে না হয়, সেই সুবিধাই দিচ্ছে পোস্ট অফিসের (India Post Office) এর নতুন পরিষেবা। এবার গ্রাহকের কাছ থেকে পার্সেল নিতে বাড়ি আসবে ডাক বিভাগ।

সে জন্য বিশেষ পার্সেল ভ্যানকে চলমান পোস্ট অফিসের ধাঁচেই গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে পার্সেল (India Post Office) ওজন করারও ব্যবস্থা থাকবে। সঙ্গে সঙ্গে রসিদ দেওয়ার জন্য P O S বা পস মেশিনও রাখা হয়েছে।

পূর্ব কলকাতা পোস্টাল ডিভিশনের অধীনে বিধাননগর পোস্ট অফিসে (India Post Office) সম্প্রতি এই পরিষেবার সূচনা করেন কলকাতা ডাক বিভাগের রিজিওনাল পোস্টমাস্টার জেনারেল নীরজ কুমার।

এমনকি ভবিষ্যতে ইকমার্স টেক জায়ান্ট কোম্পানি গুলির মতোই পার্সেল প্যাকিং পরিকাঠামোও ডাক বিভাগ গড়ে তুলতে চায় বলে জানিয়েছেন পোস্টমাস্টার জেনারেল (India Post Office).

তিনি জানান, কলকাতায় ও কলকাতার বাইরে গত ফেব্রুয়ারিতে ৪৬ হাজার পার্সেলের মাধ্যমে মোট ৩০৬ টন পণ্য গ্রাহকদের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়েছে ডাক বিভাগ (India Post Office).

LIC Pension Plan – মাত্র একবার টাকা দিয়ে পান আজীবন প্রতি মাসে 12000 টাকা পেনশন

গ্রাহক টানার জন্য ইতিমধ্যেই নিউ টাউন ও বিধাননগরে সমীক্ষা করেছে ডাক দফতর। প্রচারে লিফলেট বিলি হচ্ছে। এমনকি মোবাইল ভ্যানের গায়ে ফোন নম্বর লিখে দেওয়ার কথাও ভাবা হয়েছে। প্রেরক ওই নম্বরে ফোন করে ঠিকানা জানালেই পার্সেল সংগ্রহ করতে বাড়ি পৌঁছে যাবে মোবাইল ভ্যান।

কাছাকাছি এলাকা হলে সে দিনই পার্সেল ডেলিভারির ও ব্যবস্থা করবে ডাকঘর। ডাক বিভাগ মানুষের কাছে আকর্ষণ বাড়াতে সম্প্রতি বিধাননগর ডাকঘরে তৈরি হয়েছে ফিলাটেলিক পার্ক, যা ডাকটিকিটের আদলে বিভিন্ন কাঠামো এবং গাছ দিয়ে সাজানো (India Post Office).
Written By Shubhashis Dey

এই প্রথম সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য পোস্ট অফিসে এলো নতুন স্কিম, ঝড়ের গতিতে বাড়বে টাকা

Leave a Reply

Your email address will not be published.