low capital business idea

অতিমারীর জেরে এবং সেই সাথে লকডাউন শুরু হওয়ায় দেশের আর্থিক পরিস্থিতির ওপরে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে (Low Capital Business Idea) ৷ আর লকডাউনের জেরে বিপুল সংখ্যক মানুষ চাকরি হারিয়েছেন৷ তবে চাকরি চলে গেলেও মোটা আয়ের দারুণ সুযোগ রয়েছে৷ অল্প টাকা এই ব্যবসা শুরু করে আপনিও আয় করতে পারবেন প্রচুর টাকা৷

Low Capital Business Idea – পেপার ন্যাপকিন ব্যাবসা
সংক্রমণের জেরে পরিষ্কার পরিছন্নতার উপর এখন বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে৷ তেমনি বাড়ি, অফিস, হোটেল, রেস্তোরাঁয় পেপার ন্যাপকিনের চাহিদা ও বেড়ে চলেছে৷ কাপড়ের ন্যাপকিন থেকে টিস্যু পেপার, এখন জরুরি জিনিসের শামিল। নতুন ব্যবসা শুরু করতে চাইলে আপনার জন্য রয়েছে দারুণ আইডিয়া৷ বাজারে চাহিদা বাড়ার কারণে আপনিও পেপার ন্যাপকিন তৈরি করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন৷ আরও একটি সুবিধা হল এই ব্যবসা শুরু করার জন্য সরকারে আপনাকে আর্থিক ভাবে সাহায্য করবে (Low Capital Business Idea)।

ব্যবসা শুরু করার আগে বিস্তারিত প্ল্যান তৈরি করতে হয়৷ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল ব্যবসা শুরু করতে প্রথমে কত টাকা লাগবে৷ এই ব্যবসা শুরু করতে প্রথমে ৩.৫০ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে৷ এর জন্য আপনি যে কোনও ব্যাঙ্কে মুদ্রা স্কিমের মাধ্যমে লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷ লোনের জন্য আবেদন করলে আপনি টার্ম লোন হিসেবে ৩ লক্ষ ১০ হাজার টাকা এবং ব্যাঙ্কিং ক্যাপিটল হিসেবে ৫.৩০ লক্ষ টাকা লোন পেয়ে যাবে৷

লোন পাওয়ার পর মেশিনারির উপরে প্রায় ৪.৪০ লক্ষ টাকা খরচ করতে হবে৷ এরপর ‘র মেটিরিয়াল’-এ প্রায় ৭.১৩ লক্ষ টাকা খরচ করতে হবে৷ বাকি টাকা ট্রান্সপোর্ট, টেলিফোন, স্টেশনারি, কারেন্ট বিল প্রভৃতির জন্য লাগবে৷

বছরে আপনি প্রায় ১.৫০ লক্ষ কিলোগ্রাম পেপার ন্যাপকিন তৈরি করতে পারবেন৷ বাজারে এর দাম ৬৫ টাকা প্রতি কিলো৷ এই হিসেবে বছরে আপনার টার্নওভার হবে প্রায় ৯৭.৫০ লক্ষ টাকা৷ সমস্ত খরচের পর বছরে আপনার ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকা লাভ হবে বলে মনে করা হচ্ছে৷ আর যদি প্রথম কয়েক বছর কম রিস্ক নিতে চান তবে ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকা তো আয় হবেই।

আরও পড়ুন, অনলাইনে ইনকাম করার সেরা অ্যাপ 

Leave a Reply

Your email address will not be published.