পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষক নিয়োগ

পূজোর আগেই শিক্ষক নিয়োগ, ঘোষণা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের।

শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে রাজ্যে একাধিক মামলা চলছে। মন্ত্রী থেকে চেয়ারম্যান, বিভিন্ন অভিযোগে ঘ্রেপ্তার। আর এরই মধ্যে নতুন করে শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করলো রাজ্য সরকার।

ইতিমধ্যেই বিপুল সংখ্যক শিক্ষক (TET) নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পর্ষদ সভাপতি। তার মধ্যে ১৯ হাজার শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে খুব শীঘ্রই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হবে। গতকাল এই নিয়ে জরুরী বৈঠক সেরেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা দপ্তরের আমলারা।

রাজ্য জুড়ে বর্তমানে একাধিক বার বেরিয়ে আসছে একের পর এক শিক্ষক (TET) নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতির খবর। এই প্রতিকুল অবস্থাতে শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসুর ১৯ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ঘোষণা এক “সঞ্জিবনীর” মতো কাজ করছে।

বস্তুত, একটি সার্ভের ফলে দেখা গেছে রাজ্যে বেশিরভাগ বিদ্যালয়ের নবম – দশম – একাদশ – দ্বাদশ শ্রেনীর শিক্ষকের শুন্য পদ অনেক বেশী। অথচ, সেই সকল ক্লাসে শিক্ষার্থীর সংখ্যা নেহাত কম নয়। ফলে ব্যাহত হচ্ছে “দেশের ভবিষ্যৎ” প্রজন্মের শিক্ষা লাভ।

 শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর নতুন ঘোষণা, আর কত বছর সময় লাগবে?

বর্তমানে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই ধরা পড়েছেন তার শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতির জন্যে। পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন তিনি ও তার ঘনিষ্ঠেরা। সাথে সাথে সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগাশনের অধীনে জেরা করা হচ্ছে প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতি কল্যান্ময় গঙ্গোপাধ্যায়কে। ধীরে ধীরে একের পর এক দুর্নীতির খবর সামনে আসতেই বাক্রুদ্ধ ও ক্ষুব্ধ জনগণ। এমন এক অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে প্রকাশিত শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি কিছুটা পরিস্থিতিকে ঠাণ্ডা করতে সাহায্য করেছে।

রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেনীর কর্তাদের সাথে বৈঠকে বসেন স্টাফ সিলেকশন কমিটির কর্তারা। বৈঠকে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে রাজ্যের প্রতিটি স্কুলে নবম – দশম – একাদশ – দ্বাদশ শ্রেনীর শিক্ষকের শুন্য পদ গোনা হবে এবং তার একটি নির্দিষ্ট তালিকা বা লিস্ট তৈরি করা হবে। এই কাজ পুজোর আগেই করার নির্দেশ দেওয়া হয়। তালিকা তৈরির সাথে সাথেই শিক্ষক নিয়োগ পদ্ধতিও শুরু হয়ে যাবে।

অন্যদিকে ২০১৭ সালের প্রাইমারী টেট এর রেজাল্ট প্রকাশ হলেও তাদের ইন্টারভিউ ও নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। তার মধ্যে নতুন করে টেট বিজ্ঞপ্তি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বার বার হুমকি ফোন পাচ্ছেন পর্ষদ সভাপতি, বলে জানা গেছে।
Written by Rajeswari Sur.

এবার শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ পশ্চিমবঙ্গ সরকারের, কি জানালো শিক্ষা দপ্তর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.